দেশসেরা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন মিরপুরের কামারুল আরেফিন

প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে বাংলাদেশের সেরা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন। তিনি আগামী ১৩ই মার্চ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে এ সম্মাননা পদক গ্রহন করবেন। ইতিপূর্বে তিনি জেলা, এবং বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ট উপজেলা চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত হয়।
জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৮ উপলক্ষে প্রাথমিক শিক্ষার ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় তাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে দেশ সেরা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়।
মিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পরে প্রাথমিক শিক্ষার ব্যাপক উন্নয়ন ঘটেছে। ছাত্র-ছাত্রীদের বিনামূল্যে শতভাগ রঙিন বই, স্কুল ড্রেস, কাব ড্রেস, ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ, বিদ্যালয়ের একাডেমীক ভবন নির্মাণ, সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, বেঞ্চ, ল্যাপটপ, মডেম, ইন্টারনেট কানেক্ট, পর্যাপ্ত শিক্ষকসহ বিভিন্ন রকমের উন্নয়ন মূলক কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এ সকল কর্মকান্ডের ফলে ২০০৮ সালে ১৮% শিশু স্কুল থেকে ঝড়ে পড়তো বর্তমানে তা শুন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। শতভাগ স্কুলে ল্যাপটপ, মডেম, ইন্টারনেট ব্যবস্থা রয়েছে। শিশুদের মানসিক ও শারিরিক বিকাশে ২০০৯ সাল হতে বঙ্গবন্ধু ও ২০১০ সাল হতে বঙ্গমাতা নামে নিয়মিত ফুলবল টুর্ণামেন্টের আয়োজন ও দারিদ্র শিশুদের মাঝে স্কুল ড্রেস, শিক্ষা উপকরণ, কাব ড্রেস, টিফিন বক্স বিতরণ করা হয়েছে।
শুধু তাই নয় শিক্ষার নাম উন্নয়ন ও ঝড়ে পড়া রোধে স্থানীয় ব্যক্তিদের জনসম্পৃক্ত করে নিয়মিত মা, সূধী সমাবেশের ব্যবস্থাসহ ব্যক্তিগত পর্যায়ে যে সকল ব্যক্তি ও দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকতা, জনপ্রতিনিধি ও শিক্ষকদের জন্য নিয়মিত শিক্ষা পদকের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
শিক্ষার মান উন্নয়নে অবদান রাখায় ২০১৮ সালের মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন খুলনা বিভাগের শ্রেষ্ট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদকে ভূষিত হন। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামারুল আরেফিন বলেন, স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নয়নের বিকল্প নেই। তাই বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে শিক্ষার কল্যাণে কাজ করে ব্যপক উন্নয়ন করেছে। দলমতের উর্দ্ধে উঠে এ উপজেলার সকল বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ, মডেম, ইন্টারনেট ব্যবস্থা করা হয়েছে।
তার এ সাফল্যে মিরপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ¦ মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, সহ-সভাপতি কাঞ্চন কুমার হালদার, সাবেক সভাপতি আছাদুর রহমান বাবু, সাবেক আহ্বায়ক হুমায়ূন কবির হিমু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম, আমলা প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মাসুম, সাংবাদিক মস্তফা কামাল, সুমন মাহমুদ, রুবেল আহম্মেদ, জাহিদ হাসানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সামাজিক সংগঠন পৃথক পৃথকভাবে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *